সময় কখনো ফিরে আসে না

সময় কখনো ফিরে আসে না's Category :

সময় কখনো ফিরে আসে না's Publication :

সময় কখনো ফিরে আসে না's Writer :

সময় কখনো ফিরে আসে না


"সময় কখনো ফিরে আসে না" বইটির মূল্য

নতুন বইঃ 78 Taka


"সময় কখনো ফিরে আসে না" বইটির বিস্তারিত

অনুবাদ: আব্দুল্লাহ ইউসুফ
পৃষ্টা সংখ্যা: ৮৮
প্রচ্ছদ মূল্য: ১১২ টাকা

হাসান বসরি রহ. বলতেন—
❝প্রতিটি দিনই আদম সন্তানকে ডেকে বলে যায়—আদম-সন্তান, আমি নতুন একটি দিন। আমার মাঝে মানুষ যে কাজ করে, আমি তার সাক্ষী হয়ে থাকি। যদি আমি চলে যাই, তবে পেছনে আর কখনো ফিরে আসি না। তাই তোমার যা ইচ্ছে, তা সামনে পাঠাও। ভবিষ্যৎ জীবনে তুমি তারই প্রতিদান পাবে। আর যা পেছানোর ইচ্ছে করো, তা পিছিয়ে রাখো। মনে রেখো, সময় কখনো ফিরে আসবে না।❞
- - - - - - -
“যৌবনের এ সুস্থতা, গায়ের শক্তিমত্তা তোমাকে যেন ধোঁকায় না ফেলে। জীবনতো সময়ের অপরনাম। এ সময় মূল্যবান। তাই সময়কে হেলায়-খেলায় নষ্ট কোরো না। একদিন যে মৃত্যু হবে, সে কথা ভুলে যেও না। সেদিনটি হয়তো আজই।কত সুস্থ-সবল মানুষের মৃত্যু সংবাদ আমরা শুনেছি! আবার কত দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত ব্যক্তিকে বছরের পর বছর জীবিত দেখছি। কত শিশু ও যুবককে দেখেছি কবরে শায়িত হতে! তাই বলি, মনে কোরো না তোমার হাতে অফুরন্ত সময় আছে। না, এমন ধোঁকায় পোড়ো না কখনো।দুনিয়ার এ জীবন মুসাফিরের জীবন—এ পরমসত্য কি আমরা ভুলে বসেছি? ভুলে গিয়েছি কি দুনিয়া চিরস্থায়ী নয়? এ দুনিয়া ছেড়ে চলে যেতে হবে আমাদের, ভুলে গেছি কি?এক সালাফের ঘরে কিছু মানুষ এলো। তারা নজর বুলিয়ে নিল পুরো ঘরটাতে। তার উদ্দেশে বলল: আমরা দেখছি আপনার এ বাড়িটিতে আপনি থাকছেন না। কোথাও যাওয়ার প্রস্তুতি হচ্ছেন বুঝি? তিনি উত্তর দিলেন, আমি কোথাও সফর করবো এমনটা বলা যায় না। কারণ এ দুনিয়া থেকে সফর হয় না। বরং একে বিতাড়ন বলাই ভালো।”

——জামিউল উলুম ওয়াল হিকাম : ৪৬০।
- - - - - - - -
ভাই আমার, মুমিনের কি কোনো অবসর সময় থাকে?
মহান প্রভুর এ বাণীটি শুনুন—
فَإِذَا فَرَغْتَ فَانصَبْ - وَإِلَىٰ رَبِّكَ فَارْغَب
‘কাজেই তুমি যখনই অবসর পাবে, ইবাদতে কঠোর শ্রমে লেগে যাবে, এবং তোমার রবের প্রতি গভীরভাবে মনোনিবেশ করবে।’
আপনি হয়তো মানুষের মাঝে ঘেরা থাকেন। ব্যস্ত থাকেন তাদের নিয়ে। ব্যস্ততা আপনাকে ঘিরে থাকে জীবনের প্রতিটি পদে পদে।...
‘তবুও যখন এসব থেকে অবসর পান, যিনি আমাদের সাধনা ও পরিশ্রমের ইবাদত পাওয়ার উপযুক্ত, কষ্ট করে ও ক্লান্ত হয়ে করা ইবাদতের যিনি হকদার; একাকী-নিভৃতে মনোযোগ ও মনোনিবেশের সবটুকু পাওয়া যার অধিকার—অবসর সময়ে পুরোপুরি তাঁর দিকেই মনোনিবেশ করুন।’ (ফি জিলালিল কুরআন : ৬/৩৯৩)
0