রবের আশ্রয়ে

রবের আশ্রয়ে's Category :

রবের আশ্রয়ে's Publication :

রবের আশ্রয়ে's Writer :

রবের আশ্রয়ে


"রবের আশ্রয়ে" বইটির মূল্য

নতুন বইঃ 198 Taka


"রবের আশ্রয়ে" বইটির বিস্তারিত

বিষয় : ইসলামী চিকিৎসা
পৃষ্ঠা : ২০০

বরিশালের মাহমুদ। হঠাৎ হঠাৎ সে অচেতন হয়ে পরে। হ্যালুসিনেশন বা অলিক প্রত্যক্ষণ রোগে আক্রান্ত সে। মানে সে এমন অনেক কিছুই দেখে, যা অন্যরা দেখে না। মনমরা ভাব, ভীতি ও নানা ধরনের সমস্যা দিন দিন তার মাঝে সৃষ্টি হতে থাকে। সে বিভিন্ন মনোবিজ্ঞানী ও কনসালটেন্ট দেখিয়েছে। কিছুতেই কিছু হয় না। বিভিন্ন কবিরাজও দেখানো হয়েছে তাকে। কবিরাজ বাড়ি বন্ধ করে; তাবিজ দেয়; তেল পড়া দেয়; জিন বন্দি করে; ঘটি কলসি... আরও কত কী! কিছুতেই কিছু হয় না। অবশেষে একজন রাকীর কাছে গেলেন তিনি। রাকী তাকে আর কিছু নয়; কুরাআনের আয়াত পড়ে ঝাড়লেন; আর কিছু মাসনুন দুআ দিলেন। কুরআন তিলাওয়াতের শুরুতেই সে হরহর করে বমি শুরু করল।
.
এটি জাদুর লক্ষণ। জাদুর রোগীকে যখন রুকইয়া করা হয়, মানে কুরআন পাঠ করে এবং ‘দুআ-ই-মাসূরা’ পড়ে ঝাড়-ফুঁক করা হয়, তখন তার মাঝে বিভিন্ন লক্ষণ প্রকাশ পেতে পারে। অন্যতম একটি লক্ষণ হলো বমি। বমির মাধ্যমে জাদুর প্রতিক্রিয়া ও পয়জনগুলো দূর হতে থাকে। হতে পারে, মাহমুদের প্রাথমিক পর্যায়ে মানসিক রোগ ছিল; তবে জিন-জাদুর সমস্যা ভেবে যেসব কবিরাজের কাছে সে গিয়েছে, তারাই তাকে চিকিৎসার নামে জাদু করেছে। কেননা কবিরাজরা জিনের মাধ্যমে কিংবা তাবিজের মাধ্যমে যে তদবির করে, সেটাও এক রকম জাদু। হ্যাঁ, হয়তো তাদের উদ্দেশ্য ভালো। উদ্দেশ্য ভালো আর খারাপ যাই হোক! কুফুরি তো কুফুরি! আবার এমনও হতে পারে, আসলে তার সমস্যাটি শুরু থেকেই জাদুর প্রতিক্রিয়া।
.
জাদু, জিন কিংবা বদনজর কোনোটারই অস্তিত্ব অস্বীকারের সুযোগ নেই; এবং এগুলোর প্রভাব সত্য। তবে জাদু, জিন ইত্যাদির তা’সীর কোনও রোগ নয়; বরং রোগের কারণ। সেই রোগগুলো শারীরিক রোগ বা মানসিক রোগ বিভিন্নভাবেই প্রকাশ পেতে পারে।
জিন-জাদু-ওয়াসওয়াসা-বদনজর থেকে সুরক্ষা ও পরিত্রাণের জন্য আল্লাহ তাআলা তাঁর রাসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-কে কুরআন পড়ার নির্দেশ দিয়েছেন। রাসূলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-ও উম্মাহকে কুরআন ও দুআ-ই-মাসূরা পাঠ শিখিয়েছেন।
কুরআনকে আল্লাহ আরোগ্য বলেছেন। শুধু জিন-জাদু-ওয়াসওয়াসা নয়, আল্লাহ কুরআনে আরোগ্য রেখেছেন অন্তরের ব্যাধির, শারীরিক ব্যাধির এবং মানসিক ব্যাধির।
.
আল্লাহ বলেন, ‘আমি কুরআনের এমন কিছু আয়াত নাযিল করেছি, যা আরোগ্য এবং রহমত মুমিনদের জন্য।’ [সূরা বানী ইসরাঈল : ৮২]
0